Sunday, May 19, 2024
Homeজিকেমুর্শিদাবাদ জেলা সম্পর্কিত জিকে প্রশ্ন উত্তর | Murshidabad GK in Bengali

মুর্শিদাবাদ জেলা সম্পর্কিত জিকে প্রশ্ন উত্তর | Murshidabad GK in Bengali

মুর্শিদাবাদ জেলা সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন উত্তর

মুর্শিদাবাদ জেলা সম্পর্কিত জিকে প্রশ্ন উত্তর
মুর্শিদাবাদ জেলা জিকে
আয়তন৫৩২৪ বর্গ কিলোমিটার (২০৫৬ বর্গ মাইল)
মোট জনসংখ্যা৭১,০৩,৮৭০(২০১১ আদমশুমারি অনুযায়ী)
গ্রামীণ:৫৭,০৩,১১৫ জন, শহুরে:১৪,০০৬৯২ জন
জনসংখ্যার ঘনত্ব১৩৩৪/ বর্গ কিলোমিটার(৩৪৬০/বর্গ মাইল)
সাক্ষরতার হার৬৬.৫৯%
লিঙ্গানুপাত৯৫৮/১০০০
প্রশাসনিক বিভাগমালদা
মহুকুমা৫টি
পৌরসভা৮টি
ব্লক২৬টি
থানা২৮টি
লোকসভা৩টি (মুর্শিদাবাদ,জঙ্গিপুর,বহরমপুর)
গ্রাম পঞ্চয়েত২৫৪
বিধানসভা কেন্দ্র২২ টি

মুর্শিদাবাদ নামটির উৎপত্তি ও নামকরণের ইতিহাস

মুর্শিদাবাদের আগে নাম ছিল “মুখসুসাবাদ”,লোকে বলতো মুখসুদাবাদ।  তারও আগে নাম ছিলো “সৈদাবাদ”।আইন- ই- আকবরি”উল্লেখ আছে- মখসুস খাঁ নামে একজন ওমরাহ ছিলেন দিল্লীর বাদশা আকবরের অধীনে রাজমহলের ফৌজদার। তার ভাই সৈয়দ খাঁ ছিলেন আকবরের অধীনে বাংলার সুবাদার। সুবাদার সৈয়দ খাঁর নাম থেকে সৈদাবাদ হয়েছিল। সয়েরউল-মুতাক্ষরীণ এ উল্লেখ আছে তারও আগে নাম ছিল কুলাডিয়া।
                    নবাব মুর্শিদকুলি খাঁ এর আমলে বাংলার রাজধানী ছিলো “মুক সুদাবাদ”। ১৭০৪ সালে নবাব মুর্শিদকুলি খাঁ রাজস্ব আদায় কেন্দ্র ঢাকা থেকে স্থানান্তরিত করেন মুখসুদাবাদে। তারপর দিল্লীর সম্রাট  ঔরঙ্গজেবের অনুমতি পেয়ে নিজের নামে মুখসুদাবাদের নাম পরিবর্তন করে রাখেন” মুর্শিদাবাদ”।মুর্শিদাবাদ বাংলা,বিহার ও ওড়িষার রাজধানী ছিল।

ভৌগলিক সীমানা: উত্তরে মালদা জেলা ও গঙ্গা নদী, পূর্বে বাংলাদেশ, দক্ষিনে নদিয়া ও বর্ধমান জেলা, পশ্চিমে বীরভূম জেলা ও ঝাড়খন্ড রাজ্যে অবস্থিত।

জলবায়ু: এই জেলার জলবায়ু হল উষ্ণ- আর্দ্র ক্রান্তীয় মৌসুমী প্রকৃতির। গ্রীষ্মকালের সর্বাধিক উষ্ণতা ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন উষ্ণতা ১৩ডিগ্রি সেলসিয়াস, গ্রীষ্মকালে কালবৈশাখীর প্রবল প্রাদুর্ভাব দেখা যায়।

নদনদী: মুর্শিদাবাদ জেলা নদীর একটি বড় সম্পদ। নদীগুলোকে সংস্কার করলে বহু মানুষের জীবিকা হতে পারে। এই জেলার উল্লেখযোগ্য নদী গুলি হল-ভাগীরথী, পদ্মা, জলঙ্গি, ব্রাহ্মণী, দ্বারকা, ময়ূরাক্ষী প্রভৃতি।

কৃষিজ ফসল: এই জেলার প্রধান কৃষিজ  ফসল হলো  ধান, গম ও আখ।

উৎসব: এই জেলার প্রধান উৎসব হলো বেরা উৎসব।

মুর্শিদাবাদ সম্পর্কিত জিকে প্রশ্ন উত্তর

1) মুর্শিদাবাদ জেলার নামকরণ কিভাবে হয়?
উত্তর) বাংলার নবাব মুর্শিদকুলি খান এর নাম অনুসারে এই  জেলার নাম হয় মুর্শিদাবাদ।

2)কত সালে মুর্শিদাবাদ জেলার মর্যাদা লাভ করে?
উত্তর) ১৭৮৬ সালের ১৮ই এপ্রিল।

3) মুর্শিদাবাদ জেলা কী জন্য বিখ্যাত?
উত্তর) মুর্শিদাবাদে আম ও মিষ্টির জন্য প্রসিদ্ধ লাভ করেছে। খাগড়ার ছানাবড়া, আজিমগঞ্জের বরফি সন্দেশ, চমচম ও কমলাভোগের জন্য বিখ্যাত। মুর্শিদাবাদের সিল্ক বিখ্যাত।

4) মুর্শিদাবাদ কোন বিভাগের অন্তর্গত  জেলা?
উত্তর) মালদা বিভাগের একটি জেলা।

5) এই জেলার সদর দপ্তর কোথায়?
উত্তর) বহরমপুর শহরে।

6) এই জেলার স্বাভাবিক উদ্ভিদের নাম বলো?
উত্তর) এই জেলায় জলাভূমির প্রাধান্য থাকে, জলজ উদ্ভিদের দেখা যায়। এছাড়াও  জাতীয় গাছ বাঁশ গাছ দেখা যায়। এছাড়াও আমগাছ, কলা, বেল নারকেল গাছ দেখা যায়।

7) এই জেলার কৃষিকাজ সম্পর্কে আলোচনা কর?
উত্তর) এই জেলা মূলত কৃষি নির্ভর। এই জেলার কিছু যে ফসল গুলি হল-ধান, গম, পাট, তৈলবীজ, ভুট্টা, আলু।রেশম চাষে অগ্রগণ্য।

8) এই জেলার প্রধান শিল্প গুলির নাম লেখো?
উত্তর) এই জেলার প্রধান শিল্প গুলি হল -রেশম শিল্প, হাতির দাঁত শিল্প

9) এই জেলার পরিবহন ব্যবস্থা সম্পর্কে আলোচনা কর?
উত্তর) মুর্শিদাবাদ জেলার জাতীয় সড়ক ও রাজ্য সড়ক, জেলা সড়ক ও গ্রামীন সড়কে CSTC ও SBSTC বাস চলাচল করে। এছাড়াও রেলপথ লালগোলা- পলাশি, ফারাক্কা সালার বিস্তৃত।

10) এই জেলার উপর দিয়ে কত নম্বর জাতীয় সড়ক বয়ে গেছে?
উত্তর)৩৪ নম্বর।

11) মুর্শিদাবাদ জেলার কোথায় রাজা শশাঙ্কের রাজধানী ছিল?
উত্তর) কর্ণসুবর্ণ।

12) মুর্শিদাবাদ জেলার কোন স্থান থেকে গঙ্গার নাম পদ্মা হয়েছে?
উত্তর) ধুলিয়ান থেকে।

13)মুর্শিদাবাদ জেলার কোন স্থান আমের জন্য বিখ্যাত?
উত্তর) লালগোলা ও ভগবান গোলা।

14) মুর্শিদাবাদ জেলার কয়েকটি বিখ্যাত দর্শনীয় স্থানের নাম?
উত্তর) হাজারদুয়ারি, নবাবের গোলাপবাগ ও লালবাগ, জগৎশেটের বাড়ি, কান্দিতে রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদীর বাড়ি।

15) মুর্শিদাবাদ জেলার হাজারদুয়ারি কত খ্রিস্টাব্দে  প্রতিষ্ঠিত?
উত্তর) 1837 খ্রিষ্টাব্দ।

16) হাজারদুয়ারি কে নির্মাণ করেছিলেন?
উত্তর) নবাব নাজিম হুমায়ুন জাদ।

17) হাজারদুয়ারি প্রাসাদের কয়টি দরজা আছে?
উত্তর) এক হাজারেরও বেশি। ৫০০টি আসল ৫০০টি নকল।

18) মুর্শিদাবাদ জেলার বিখ্যাত মসজিদটির নাম কী?
উত্তর) কাটরা মসজিদ।

19) মুর্শিদাবাদ জেলার কয়েকজন বিখ্যাত ব্যক্তির নাম?
উত্তর) মহাশ্বেতা দেবী, ঋত্বিক ঘটক, প্রত্নতত্ত্ববিদ রাখালদাস বন্দ্যোপাধ্যায়  প্রমুখ।

20) সিরাজ -উদ্- দৌলা কর্তৃক নির্মিত প্রাসাদটির নাম?
উত্তর) হিরাঝিল প্রাসাদ ও উদ্যান।

21) এই জেলার ফারাক্কাতে কী আছে?
উত্তর) ফারাক্কায় ন্যাশনাল থার্মাল পাওয়ার কর্পোরেশন।

22) ফারাক্কা ব্যারেজ কী?
উত্তর) কলকাতা বন্দরের নাব্যতা বাড়ানোর জন্য ১৯৬১ সাল থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত মুর্শিদাবাদ জেলায় ২২৪০ মিটার ফারাক্কা একটি ব্যারেজ নির্মাণ করা হয়েছে এরই নামকরণ করা হয়েছে ফারাক্কা ব্যারেজ। হিন্দুস্থান কন্সট্রাকশন কোম্পানি এই বাঁধটি নির্মাণ করেন। এই ব্যারেজে ১০৯ টিকেট আছে।

23) এই জেলায় গঙ্গা নদী বিভক্ত হয়ে কী  নামে পরিচিত হয়েছে?
উত্তর) ভাগীরথী নদী।

24) মুর্শিদাবাদ জেলার প্রথম নবাব বাহাদুর কে ছিলেন?
উত্তর) হাসান আলি মির্জ্জা।

25) এই জেলার শেষ স্বাধীন নবাব কে ছিলেন?
উত্তর) নবাব সিরাজ – উদ- দৌলা।

26) মুর্শিদাবাদ জেলার প্রাথমিক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা কত?
উত্তর) প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৩১৬৬, মাধ্যমিক স্কুলের সংখ্যা ২৬৭, উচ্চমাধ্যমিক ১৬৭ টি।

26) নবাব মাদ্রাজা ও নিজামত স্কুল সংযুক্তির পর কী নাম হয়?
উত্তর) নবাববাহাদুর ইনস্টিটিউশন।

27) “মুর্শিদাবাদের” রচয়িতা কে?
উত্তর) শ্যামধন মুখোপাধ্যায়।

28) সিপাহী বিদ্রোহের সূত্রপাত হয় কোথায়?
উত্তর) মুর্শিদাবাদ জেলার বহরমপুর এর ব্যারাকে। ২৬ শে ফেব্রুয়ারি ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দে।

মুর্শিদাবাদ জেলার কিছু উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিবর্গ

1) রাখালদাস বন্দ্যোপাধ্যায়: বিশিষ্ট বাঙালি ঐতিহাসিক ও প্রত্নতত্ত্ববিদ। তিনি মহেঞ্জোদারো ধ্বংসাবশেষের আবিষ্কারক। তিনি কুষাণ ও পাল বংশের রাজাদের অনেক মূল্যবান তথ্য সংগ্রহ করেন।
2) রামদাস সেন: সাহিত্যিক
3) মণীশ ঘটক: বিখ্যাত সাহিত্যিক। তার লেখা প্রথম কাব্যগ্রন্থ হল শিলালিপি। উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ হলো পটল ডাঙার পাঁচালী।
4) সৈয়দ মুজতবা আলী: বিখ্যাত সাহিত্যিক।
5) গোবিন্দ দাস: বাংলার বৈষ্ণব পদাবলী সাহিত্যের একজন বিখ্যাত পদকর্তা।
6) রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী-শিক্ষাবিদ ও বিজ্ঞান লেখক। তার লেখা গ্রন্থ গুলি হল কর্মকথা ও প্রকৃতি জিজ্ঞাসা।
7) অরিজিৎ সিং: একজন খুব জনপ্রিয় বিখ্যাত গায়ক।
8) শ্রেয়া ঘোষাল: একজন খুব বিখ্যাত গায়িকা।
9) মাস্টারদা সূর্যসেন: অবিভক্ত বাংলার একজন স্বাধীনতা সংগ্রামী।
10) মীর: একজন সুপরিচিত রেডিও জকি ও অভিনেতা।
11) অধীর রঞ্জন চৌধুরী: বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ।

মুর্শিদাবাদের উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক স্থান

হাজার দুয়ারী, কাটরা মসজিদ, মতিঝিল পার্ক, জগৎ শেঠের বাড়ি, সিরাজ উদ দৌলার সমাধি, আর্মেনিয়ান চার্চ, নিজামত ইমামবাড়া, আজিমুন্নিসা বেগমের সমাধি ইত্যাদি।

Read More:: হুগলি জেলা জিকে

RELATED ARTICLES

3 COMMENTS

  1. Please নদীয়া জেলা সম্পর্কে কিছু জিকে দেন ইন্টারভিউর উপযুক্ত

  2. উত্তর 24 পরগনা জেলা সম্পর্কে gk দিলে খুব ভালো হয়। interview জন্য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Recent Posts

Most Popular